পৌরসভা নির্বাচন : দিরাইয়ে জমে উঠেছে প্রচারণা, ত্রিমুখী লড়াইয়ের আশা - Sangbad Protidin | সংবাদ প্রতিদিন

ব্রেকিং নিউজ

মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২০

পৌরসভা নির্বাচন : দিরাইয়ে জমে উঠেছে প্রচারণা, ত্রিমুখী লড়াইয়ের আশা

সংবাদ প্রতিদিন ডেস্ক:
হাওরের জনপদ সম্প্রীতির রাজনীতির উর্বর ভূমি দিরাই  পৌরসভার সবখানে বইছে নির্বাচনী আমেজ। আগামী ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে দিরাই পৌরসভার নির্বাচন। পৌর শহরের হোটেল রেস্তোরা সহ সবখানে আলাপ-চারিটায় এখন শুধু নির্বাচনী সংলাপ।

এদিকে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক এমনকি প্রতিটি ওয়ার্ডের পাড়া মহল্লায় মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোস্টারে ভরপুর, পৌরসভা এখন মাইকিং, গণসংযোগ আর পোস্টারের শহরে পরিণত হয়েছে। শেষদিকে এসে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা। চতুর্থ বারের মতো  অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে বড় দুই দলের বিদ্রোহী প্রার্থী সহ ৮ জন মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
 
এবারের নির্বাচনে প্রার্থীরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে বিশ্বজিৎ রায় বিশ্ব, বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান মেয়র জগ প্রতীক নিয়ে মোশাররফ মিয়া, বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে অ্যাড. ইকবাল হোসেন চৌধুরী, বিদ্রোহী প্রার্থী চামচ প্রতীক নিয়ে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুল কাইয়ূম। আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে অনন্ত মল্লিক,জমিয়তের খেজুর গাছ প্রতীক নিয়ে হাফেজ মাওলানা লোকমান আহমদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোবাইল প্রতীক নিয়ে সমাজকর্মী রশীদ মিয়া ও হেলমেট প্রতীক নিয়ে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম।



এ ছাড়াও ৯ টি ওয়ার্ডে ৩৯ জন সাধারণ কাউন্সিলর ও ১৩ জন নারী কাউন্সিলর প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বিভিন্ন শ্রেণি পেশার ভোটারদের সাথে কথা বলে জানাযায়, ভোটারদের মন জয় করতে বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করছেন প্রার্থীরা, দিচ্ছেন মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলার প্রতিশ্রুতি। তবে ২১ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত পৌরসভায় বিগত ৫ বছরে সবচেয়ে বেশি উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে বলে জানান তারা।
বিগত দিনে ভাটির প্রবাদ পুরুষ জাতীয় নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা নাছির উদ্দিন চৌধুরীর সমর্থিত প্রার্থীদের মধ্যেই হত মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা তবে এবার ভোটের মাঠে শক্তিশালী বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় মেয়র পদে বড় দুই দলের প্রার্থী ও বর্তমান মেয়রের মাঝে ত্রিমুখী লড়াইয়ের সম্ভাবনা দেখছেন তারা।
 
দিরাই প্রেসক্লাব সভাপতি সামছুল ইসলাম সরদার খেজুর বলেন, প্রার্থীদের মাঝে পরস্পরের কুশল বিনিময়, পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ এবং অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের অঙ্গিকার সত্যই প্রশংসার দাবিদার, দিরাই’র অতীতের রাজনৈতিক ঐতিহ্য বজায় থাকবে এ আমার বিশ্বাস।

প্রাক্তন শিক্ষক, সমাজকর্মী আব্দুর জাহির বলেন, ২৮ ডিসেম্বর দিরাই পৌরসভার নির্বাচন কে ঘিরে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক এমনকি পাড়া মহল্লা পোস্টারে ছয়লাব হয়ে গেছে , প্রার্থীদের দৌড়-ঝাঁপ চোখে পড়ার মতো, সব মিলিয়ে শহরে বইছে নির্বাচনী আমেজ। এবারের নির্বাচন সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম, বড় দুই দলের প্রার্থী ছাড়াও বর্তমান মেয়র বিগত নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী মোশাররফ মিয়া শক্তিশালী প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছেন, ভোটের মাঠে মোশাররফ মিয়া পাকা খেলোয়াড়। এবারের নির্বাচনে ত্রিমুখী লড়াইয়ের সম্ভাবনা দেখছি।

দিরাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আশরাফুল ইসলাম বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ বাহিনী তৎপর, যেকোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা রোধে পুলিশ সতর্ক রয়েছে। উপজেলা নির্বাচন অফিসার এমদাদুল হক বলেন, প্রথম বারের মতো দিরাই পৌরসভায় ইভিএম এর মাধ্যমে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ।

দিরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সফি উল্লাহ বলেন, প্রার্থীদের মধ্যে পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ সত্যই আমাকে অভিভূত করেছে ।বড় দলের মেয়র প্রার্থীরা  দিরাই রাজনৈতিক সম্প্রীতি প্রশংসার দাবিদার। প্রশাসন সুষ্ঠু নির্বাচনে বদ্ধ পরিকর।

প্রসঙ্গত, পৌরসভার বর্তমান ভোটারের সংখ্যা ২১ হাজার ৩৭৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১০ হাজার ৫৫২ জন, নারী ১০ হাজার ৮২৭ জন ভোটার রয়েছেন। আগামী ২৮ ডিসেম্বর ১২ টি কেন্দ্রে প্রথম বারের মতো ইভিএম এ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন