সিলেট-শ্রীমঙ্গল ও সিলেট-হবিগঞ্জ রুটে বিআরটিসি বাস চলাচলের সিদ্ধান্ত শুক্রবার - Sangbad Protidin | সংবাদ প্রতিদিন

ব্রেকিং নিউজ

মঙ্গলবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২০

সিলেট-শ্রীমঙ্গল ও সিলেট-হবিগঞ্জ রুটে বিআরটিসি বাস চলাচলের সিদ্ধান্ত শুক্রবার

সংবাদ প্রতিদিন ডেস্ক:
সিলেট-মৌলভীবাজার-শ্রীমঙ্গল ও সিলেট-হবিগঞ্জ রুটে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) বাস চলাচলের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আসতে পারে শুক্রবার। বিআরটিসির সিলেটের ডিপো সূত্রে এমনটাই জানা গেছে।

এর আগে এই দুই রুটে বিআরটিসি চালুর এক দিনের মাথায় পরিবহনশ্রমিক ও মালিক সংগঠনের বাধার মুখে বন্ধ হয়ে যায়। তাই বিষয়টি সমাধানে গতকাল সোমবার বৈঠক করা হয়েছিল। তবে বৈঠকেও কোনো সিদ্ধান্ত না আসায় আরও অপেক্ষা করতে হবে দুদিন।
 
সোমবার বিকেল চারটা থেকে আড়াই ঘণ্টা সিলেট বিভাগীয় কমিশনার মো. মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে সিলেট বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তাদের নিয়ে পরিবহন শ্রমিক-মালিক সমিতি ও পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক হয়। ওই বৈঠকেও সিলেট-শ্রীমঙ্গল ও হবিগঞ্জ সড়কে বিআরটিসির বাস চালু নিয়ে কোনো সিদ্ধান্তে আসা যায়নি। ১ জানুয়ারি বিভাগীয় কমিশনারকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির পক্ষ থেকে সিদ্ধান্তের পর এ দুটি রুটে কয়টি বিআরটিসি বাস চালু করা হবে, এই ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, পরিবহন মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা সিলেট-শ্রীমঙ্গল ও হবিগঞ্জ সড়কে পর্যাপ্ত বাস রয়েছে বলে জানান। সেই সঙ্গে বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ বাস মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠনকে কোনোভাবে অবহিত না করেই হুট করেই এই দুই রুটে ১২টি বাস নামানোর সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু বিআরটিসি ইচ্ছে করলেই এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে না।
 
এদিকে বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ বলছে, যাত্রীদের চাহিদার বিষয়টি চিন্তা করেই মন্ত্রণালয় থেকে এ রুটে বাস সার্ভিস চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যার উদ্বোধন করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. জিয়াউল কবীর বলেন, ‘বিভাগীয় কমিশনারের সভাপতিত্বে বৈঠকে আমরা মালিক সমিতি ও পরিবহন শ্রমিক নেতারা আমাদের দাবি উত্থাপন করেছি। বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ বাস চালুর কথা বলেছে। আমরা কয়দিন সময় চেয়েছি। আগামী শুক্রবার বাস চালুর ব্যাপারে আমরা বিভাগীয় কমিশনারকে সিদ্ধান্ত জানাব।’
 
বিআরটিসির সিলেটের ডিপো ব্যবস্থাপক জুলফিকার আলী বলেন, বৈঠকে বাস চালুর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামী শুক্রবার পর্যন্ত সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করতে বিভাগীয় কমিশনার নির্দেশ দিয়েছেন। বিভাগীয় কমিশনার বলেছেন, বছরের প্রথম দিনে বিআরটিসির বাস সার্ভিস চালুর মাধ্যমে বিভাগের বাসিন্দাদের উপহার হিসেবে থাকবে। তিনি বলেন, শুক্রবার থেকেই বিআরটিসির বাস ওই দুটি রুটে চলাচল করতে পারে।

২২ ডিসেম্বর সিলেট-শ্রীমঙ্গল ও হবিগঞ্জ রুটে চলাচলের জন্য বিআরটিসি সিলেট ডিপোতে শীততাপনিয়ন্ত্রিত ৪টি বাসসহ ১২টি বাসের উদ্বোধন করা হয়। ওই সময় পরিবহন ধর্মঘট চলায় বাসগুলো সড়কে নামানো হয়নি। গত রোববার এই দুই সড়কে বিআরটিসির দুটি বাসে যাত্রী পরিবহন শুরু হয়। তবে বাসে যাত্রী পরিবহন করতে গিয়ে পরিবহনশ্রমিক ও মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দের বাধার মুখে পড়ে বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ। এ সময় বিআরটিসি সিলেটের ডিপো ব্যবস্থাপকের ব্যবহৃত যানবাহন ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ দুটি রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন