সুনামগঞ্জে একটি সেতুর জন্য লক্ষাধিক মানুষের দুর্ভোগ - Sangbad Protidin | সংবাদ প্রতিদিন

ব্রেকিং নিউজ

মঙ্গলবার, ৩ নভেম্বর, ২০২০

সুনামগঞ্জে একটি সেতুর জন্য লক্ষাধিক মানুষের দুর্ভোগ

সুনামগঞ্জে একটি সেতুর জন্য লক্ষাধিক মানুষের দুর্ভোগ
সংবাদ প্রতিদিন ডেস্ক:
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার হালুয়ারঘাট-ধারারগাঁও এলাকায় সুরমা নদীর ওপর সেতু নির্মাণের দাবি দীর্ঘদিনের। এ নিয়ে অনেক আন্দোলন-সংগ্রামও করেছে সুরমা উত্তর পাড়ের লক্ষাধিক মানুষ। সুরমা নদীর ওপর সেতু নির্মাণ হলে ওই এলাকার কয়েক লাখ মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থা পরিবর্তনের পাশাপাশি সুনামগঞ্জ জেলা সদরের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করা যাবে, কমবে দুর্ভোগ।

সুরমা উত্তর পাড়ের বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তারা খুব কষ্টে আছেন। সুরমা নদীর হালুয়ারঘাট-ধারারগাঁও এলাকায় সেতু নির্মাণ হলে সদর উপজেলার সুরমা, জাহাঙ্গীরনগর ও রঙ্গারচর ইউনিয়ন এবং দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার ও লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের কয়েক লাখ মানুষের জেলা সদরের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন হবে। ফলে তাদের কষ্ট কমার পাশাপাশি অর্থনৈতিক অবস্থাও পরিবর্তন হবে।

সুরমা উত্তর পাড়ের বাসিন্দা আনোয়ার মিয়া বলেন, আমরা সুরমা ইউনিয়নের মানুষ খুব কষ্টে আছি। জেলা সদরে যেতে হলে আমাদের প্রায় আধা ঘণ্টা নৌকার জন্য দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। রোগীকে সময় মত হাসপাতালে নেয়া সম্ভব হয় না। দ্রুত সুরমা নদীর ওপর সেতু নির্মাণের দাবি জানাই।

সুরমা নদীর উত্তর পাড়ের কৃষ্ণনগর গ্রামের তাজুল ইসলাম বলেন, হালুয়ার-ধারারগাঁও সেতু নির্মাণ হলে উত্তর সুরমার লাখো মানুষের অর্থনৈতিক চিত্র বদলে যাবে। রাজধানী থেকে ট্রাক আসবে। এলাকার উৎপাদিত শাক-সবজি বহন করে নিয়ে যাবে অধিক মূল্যে। যোগাযোগের অব্যবস্থার কারণে এই এলাকার কৃষকরা কম দামে সবজি বিক্রি করতে বাধ্য হন।

উত্তর সুরমা উন্নয়ন পরিষদের সদস্য সচিব আকরাম উদ্দিন বলেন, সীমান্তের ডলুরায় বর্ডার হাট রয়েছে। সেখানে ইমিগ্রেশনসহ শুল্ক বন্দর করার দাবি অনেকের। এই দাবি বাস্তবায়নেরও প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছে। সেতু হলে ইমিগ্রেশনসহ শুল্ক বন্দরের কাজও দ্রুত এগোবে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সদ্য অবসরে যাওয়া চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক ২০১৭ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, একই বছরের ১ মার্চ এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী শ্যামা প্রসাদ অধিকারী, ১৩ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুল মালেককে হালুয়ারঘাট-ধারারগাঁওয়ে সেতু নির্মাণের জন্য অনুরোধপত্র দিয়েছিলেন।

ড. মোহাম্মদ সাদিকের অনুরোধপত্রে ছয় ইউনিয়নের মানুষের যাতায়াত দুর্ভোগের পাশাপাশি ডলুরায় মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজরিত ৪৮ জন শহীদের শহীদ মিনারে যাতায়াত দুর্ভোগের অবসান, ডলুরায় হওয়া দুই দেশের সীমান্ত হাটে যাতায়াত সুবিধা এবং ডলুরায় শুল্ক বন্দর হওয়ার যে কাজ শুরু হয়েছে সেখানে যাতায়াত ও পণ্য পরিবহনের সুবিধার জন্য এই সেতু জরুরি বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এছাড়াও সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ্ ও সাবেক সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান এই সেতু নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধপত্র দেয়াসহ নানাভাবে চেষ্টা করছেন।

সুনামগঞ্জ এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহবুব আলম জানান, এই প্রকল্পটির প্রাথমিক কাজ আশানুরুপভাবে এগিয়েছে। সম্প্রতি বিআইডব্লিউটিএ’র একটি কারিগরি দল এবং বুয়েট’র একটি সার্ভে দল এলাকা পরিদর্শন করে গেছেন।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন