ত্রিমুখী লড়াইয়ে লক্ষীপাশা ইউনিয়নের উপ-নির্বাচন - Sangbad Protidin | সংবাদ প্রতিদিন

ব্রেকিং নিউজ

মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০

ত্রিমুখী লড়াইয়ে লক্ষীপাশা ইউনিয়নের উপ-নির্বাচন

সংবাদ প্রতিদিন ডেস্ক:
সিলেটের গোলাপগঞ্জে লক্ষীপাশা ইউনিয়নের উপ-নির্বাচন আজ ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বানে ত্রিমুখী লড়ায়ের আবাস পাওয়া গেছে। নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী মাহমুদ হোসেন, ধানের শীষের প্রার্থী আফজাল হোসেন,  স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতিকের মাহতাব উদ্দিন জেবুলের মধ্যে ত্রিমুখী লড়াইয়ের আভাস পাওয়া গেছে।

এদিকে শেষ সময়ের নির্বাচনী প্রচারণায় গত রোববার উৎসব আমেজ বিরাজ করেছিল লক্ষীপাশার পুরো ইউনিয়নে। প্রচার প্রচারণায় মুখরিত ছিল সারাদিন। সকল প্রার্থী তাদের শেষ প্রচারণা চালিয়েছেন।  করেছেন শেষ জনসভা।

এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মাহমুদ আহমদ, বিএনপি মনোনীত ধানের শীর্ষ প্রতীকের প্রার্থী আফজল হুসেন,  স্বতন্ত্র  আনারস প্রতীকের প্রার্থী মাহতাব উদ্দিন জেবুল, ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল আলিম তুহিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নির্বাচনে যোগ্য প্রার্থীকেই নির্বাচিত করবে বলে বেশ কয়েকজন এলাকাবাসী জানান।

কোনাচর গ্রামের বাসিন্দা সাহেল আহমদ  বলেন, যে এলাকার উন্নয়নে কাজ করবে তাকেই আমরা ভোট দেবো। এলাকাবাসী যোগ্য প্রার্থীকেই বেছে নেবো বলেও জানান তিনি।

শ্রীবহর গ্রামের কামরুল আহমদ জানান, আমরা প্রতিক দেখে নয়, যোগ্যতা দেখে আমাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করা হবে।    

আওয়ামী লীগ প্রার্থী মাহমুদ আহমদ  বলেন,  এ এলাকার যত উন্নয়ন তা এ সরকারের অবদান। নির্বাচনে ভোটারদের কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া পাচ্ছি। নির্বাচনে আমি বিপুল ভোটে জয়লাভ করবো।

বিএনপি প্রার্থী আফজল হুসেন নির্বাচনী পোষ্টার ছিড়ে ফেলার অভিযোগ করে বলেন, পোষ্টার ছিড়ে ফেললে কি হবে!  এই লক্ষিপাশা ইউনিয়নের মানুষের হৃদয় থেকেতো ছিড়ে ফেলা সম্ভব নয়। আমি শতভাগ আশাবাদী আমিই নির্বাচিত হব।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহতাব উদ্দিন জেবুল বলেন, লক্ষীপাশার মানুষ আমায় এত ভালবাসে জানা ছিলনা।  আমি তাদের ঋণ কখনো শোধ করতে পারবো না। আমার বিজয় এখন সময়ের অপেক্ষা।

আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল আলিম তুহিন বলেন, যদি সুষ্ঠু নির্বাচন হয় তাহলে আমি বিজয়ী হব।
এদিকে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।

নির্বাচন কর্মকর্তা  সাইদুল রহমান  জানান, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করতে আমাদের পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

এ ইউনিয়নে  মোট ভোটার সংখ্যা ১৭ হাজার ৯ শত ১১ জন এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৮ হাজার ৯ শত ৪৪ আর নারী ভোটার ৮ হাজার ৯ শত ৬৭  জন।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন