চিকিৎসাশিক্ষায় সাফল্যের ৫৮ বছর অতিক্রম করলো ওসমানী মেডিকেল কলেজ - Sangbad Protidin | সংবাদ প্রতিদিন

ব্রেকিং নিউজ

বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০

চিকিৎসাশিক্ষায় সাফল্যের ৫৮ বছর অতিক্রম করলো ওসমানী মেডিকেল কলেজ

সৈয়দ ফারহান আলী, সিওমেক প্রতিনিধি:
  • ১৯৪৮ সালে সিলেট মেডিকেল স্কুল
  • ১৯৬২ সালে সিলেট মেডিলেল কলেজ
  • ১৯৮৪ সালে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ
সিলেটে চিকিৎসাশিক্ষার ইতিহাস সুপ্রাচীন নয়।  বছর আগেও ছিল দৈন্য। ‘মেডিকেল স্কুল’ থেকে কলেজে রূপ নেওয়া প্রাতিষ্ঠানিক চিকিৎসাশিক্ষার ভিত্তি আর কাঠামো দুটোই ছিল নড়বড়ে। সেই অবস্থা কাটিয়ে অনন্য এক উচ্চতার দিকে যাত্রা শুরু করেছে সিলেটের মেডিকেল শিক্ষাব্যবস্থা। সরকারি মেডিকেল কলেজ বিভাগীয় শহর থেকে ছড়িয়ে পড়ছে জেলা শহরে। দীর্ঘ দাবির পরিপ্রেক্ষিতে উচ্চশিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় যাত্রা শুরু করায় সিলেট এখন চিকিৎসাশিক্ষায় সাফল্যের ধারায়।

একসময় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজই ছিল সিলেটে চিকিৎসাশিক্ষার একমাত্র প্রতিষ্ঠান। 

এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ সিলেটের সবচেয়ে বড় মেডিকেল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এমবিবিএস ডিগ্রি প্রদান থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তৈরিতে এ প্রতিষ্ঠানটির ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। এখানে বর্তমানে ১ হাজার ৫০০ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছেন। 

মেডিকেলের ইতিহাস: ১৯৪৮ সালে সিলেট নগরীর চৌহাট্টায় সিলেট মেডিকেল স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হয়। এরপর স্কুলটিকে কলেজে রূপান্তরের দাবীতে আন্দোলন হলে ১৯৬২ সালে পাকিস্তান সরকারের আমলে এটিকে সিলেট মেডিকেল কলেজ নামে কলেজ পর্যায়ে উন্নীত করা হয়। ১৯৬৮-৬৯ সালে কলেজ ক্যাম্পাস সম্প্রসারণ করা হয়। ১৯৭১-৭২ সাল থেকে ক্যাম্পাসটি কাজলশাহ এলাকায় অবস্থিত। স্বাধীনতা লাভের পর, ১৯৮৬ সালে তৎকালীন সরকার বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জেনারেল মুহাম্মদ আতাউল গণি ওসমানীর নামানুসারে কলেজটির নাম পরিবর্তন করে “সিলেট এম.এ.জি. ওসমানী মেডিকেল কলেজ” রাখে যা সংক্ষেপে সিওমেক নামে পরিচিত। -সূত্র ইউকিপিডিয়া

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন